আওয়ামী লীগ সরকারের পালানোর সময় এসে গেছে : হাসান জাফির তুহীন

প্রকাশিত:রবিবার, ১৫ মে ২০২২ ১০:০৫

আওয়ামী লীগ সরকারের পালানোর সময় এসে গেছে : হাসান জাফির তুহীন

সুরমাভিউ:-  বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী কৃষক দলের কেন্দ্রীয় সভপতি, বিএপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য হাসান জাফির তুহীন বলেছেন, আওয়ামী বাকশালী সরকার দুর্নীতি ও টাকা পাচারের কারণে দেশের অর্থনীতিক দূরবস্থা দেখা দিচ্ছে। বিশ্বে আজ দেশের কোন বন্ধু নেই। জাতি হিসাবে এটা আমাদের জন্য লজ্জ্বার। শ্রীলংকার মত আওয়ামী লীগ সরকারের পালানোর সময় এসে গেছে। এজন্য ডা. খন্দাকার মোশাররফ হোসেন সহ বিরোধী দলের নেতাকর্মীদের বাসা বাড়ীতে হামলা করছে এর পরিনাম ভাল হবে না। ভবিষ্যতে এ ধরনের হামলা করা হলে প্রতিরোধ গড়ে তুলা হবে।

গত শুক্রবার রাতে সিলেট নগরীর মালঞ্চ কমিউনিটি সেন্টারে জাতীয়তাবাদী কৃষক দল সিলেট বিভাগীয় প্রতিনিধি সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি উপরোক্ত কথাগুলো বলেন।

কৃষক দলের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক সিলেট বিভাগ-এর মাহবুবুর রহমান আওয়ালের সভাপতিত্বে ও সিলেট জেলার সাবেক সদস্য সচিব তাজরুল ইসলাম তাজুল এবং মহানগর শাখার সদস্য সচিব এডভোকেট শাহ আশরাফুল ইসলামের যৌথ পরিচালনায় প্রধান বক্তার বক্তব্য রাখেন জাতীয়দতাবাদী কৃষক দলের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক, বিএপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক ও জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের সাবেক কেন্দ্রীয় ভারপ্রাপ্ত সভাপতি শহিদুল ইসলাম বাবলু।

বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য শেখ মো. শামীম, সিলেট জেলা বিএনপির সভাপতি আব্দুল কাইয়ুম চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট এমরান আহমদ চৌধুরী, মহানগরের সদস্য সচিব মিফতা সিদ্দিকী, বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী কৃষকদল কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সাধারণ সম্পাদক আনিসুল হক, ১ম যুগ্ম আহবায়ক ও জাতীয়তাবাদী কৃষক দলের কেন্দ্রীয় সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক হুমায়ুন কবির শাহীন, মহানগর বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক এমদাদ হোসেন চৌধুরী, কৃষক দলের কেন্দ্রীয় সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক ও সিলেট জেলা শাখার আহবায়ক আলহাজ্ব শাহীদ আহমদ, জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক শামীম আহমদ, শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতির সাবেক সাধারণ সম্পাদক ড. মুজাম্মেল হক, সিলেট জেলা ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি এডভোকেট সাইদ আহমদ।
এসময় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন জেলা শাখার যুগ্ম আহবায়ক জহুরুল ইসলাম মখর, মহানগর শাখার যুগ্ম আহবায়ক আব্দুল জব্বার তুতু, মৌলভীবাজার জেলা কৃষকদলের যুগ্ম আহবায়ক শামীম আহমদ, যুগ্ম আহবায়ক মুনাহিম কবির, মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের যুগ্ম আহবায়ক আফসর খান, মহানগর ছাত্রদলের সাবেক সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুস সালাম টিপু, মহানগর ছাত্রদলের যুগ্ম সম্পাদক হোসেন আহমদ, সিলেট মহানগর কৃষকদলের যুগ্ম আহবায়ক মোফাজ্জেল হোসেন পিরু, হাবিবুর রহমান, মো. আলী লাহীন, মহানগরের সদস্য ময়নূল হক স্বাধীন, শাকিল আহমদ খাঁন, আমির হোসেন, শামীম আহমদ, আব্দুজ জব্বার মদই, রেজওয়ান আহমদ, তাহির আলী সুমন, রুম্মান আহমদ, জেলা সদস্য মাহবুব আহমদ, আব্দুল খালিক, আব্দুস শহীদ, ফয়জুল ইসলাম পীর, বখতিয়ার আহমদ ইমরান, ফারুক আল মাহমুদ, জাহাঙ্গীর আহমদ, মুক্তার আহমদ বকুল, গণি মিয়া, শামীম আহমদ, আব্দুস শহীদ মাশুক, আলমাছ আহমদ চৌধুরী, শাহীন আহমদ, নুরুল আমীন, জিল্লুর রহমান খাঁন, আমিনুর রহমান আলম, মহানগর সদস্য নুরুল ইসলাম, শফিক আহমদ চৌধুরী, আব্দুর রহিম, বাবুল মিয়া, বেলাল হোসেন, মাহফুজ আলম, শাহ বদরুল, হুমায়ুন আহমদ, মানিক মিয়া, সালাউদ্দিন, মিল্লাদ আহমদ, টিটু আহমদ, ফয়সল আহমদ, সাজ্জাদ আহমদ, দেলোয়ার হোসেন, মিনাজ আহমদ, সাজিদ আহমদ, জমজম বাদশা, হাবিব আহমদ, লাভলু আহমদ, ইব্রাহীম আহমদ মনির প্রমুখ। বিজ্ঞপ্তি

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ