বিশ্বনাথে দিনমজুর অপহরণ মামলায় ৪ জন কারাগারে

প্রকাশিত:সোমবার, ০৬ ডিসে ২০২১ ০১:১২

বিশ্বনাথে দিনমজুর অপহরণ মামলায় ৪ জন কারাগারে

বিশ্বনাথ প্রতিনিধি:-  সিলেটের বিশ্বনাথে দিনমজুর রিপন আলীকে (২৮) অপহরণ চেষ্টা মামলায় আরও চার আসামিকে জেলহাজতে পাঠিয়েছেন আদালত।

রোববার (৫ ডিসেম্বর) সিলেটের জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ৫ম আমলী আদালতে ওই চারজন হাজিরা দেন।

উচ্চ আদালত থেকে ৪ সপ্তাহের জামিন নিয়ে নিম্ন আদালতে সময়মত হাজিরা না দেওয়ায় ওই আদালতের বিচারক আসমা জাহান তাদের জামিন না মঞ্জুর করে জেলহাজতে পাঠান।

জেলহাজতে পাঠানো চারজন হলেন- দশপাইকা গ্রামের মৃত মহর উল্লাহর ছেলে আব্দুল মতিন (৪৮), তার ভাই আব্দুল মুকিত (৩৫), দক্ষিণ দশপাইকা গ্রামের শুকুর আলীর ছেলে সিএনজি চালিত অটোরিকশা চালক সুহেল মিয়া (৩৩) ও উত্তর মিরের চর গ্রামের হারু মিয়ার ছেলে এলাইছ মিয়া (৩৫)।

বাদী পক্ষের আইনজীবী অ্যাডভোকেট সাজ্জাদুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি এ প্রতিবদেককে বলেন, উচ্চ আদালত থেকে জামিন নেওয়ার পর নির্ধারিত সময়ের মধ্যে নিম্ন আদালতে হাজিরা না দিয়ে আবারও জামিন বহালের আবেদন করেন।

এই কারণে তাদের জামিন না মঞ্জুর করে জেল হাজতে পাঠান বিজ্ঞ বিচারক।

জানা গেছে, চলতি বছরের ২৩ এপ্রিল রাত ১২টার দিকে পুলিশ পরিচয়ে সিলেটের বিশ্বনাথে রিপন আলী (২৮) নামের এক দিনমজুর যুবককে অপহরণ করা হয়। সে উপজেলার দশপাইকা গ্রামের দিনমজুর আসদ আলীর ছেলে।

ওইদিন অপহরণ করে নিয়ে অটোরিকশায় করে নিয়ে যাবার সময় স্থানীয় হাবড়া বাজারে (সিলেট-থ-১১-৭১৩৭) নম্বর অটোরিকশাসহ মামলার প্রধান আসামি আব্দুল মতিনের শ্যালক মারুফ মিয়া (৩২) ও আফজাল মিয়াক (৩৫) আটক করে পুলিশে দেওয়া হয়। এ সময় অপহৃত রিপনকে উদ্ধার করা হয়।

এরপর আটক দুই শ্যালক মারুফ ও আফজাল এঘটনায় থানা পুলিশের কাছে তাদের দুলাভাইসহ ৭জন জড়িত থাকার কথা জানান।

এ কারণে তাদের দুলাভাই আব্দুল মতিনসহ ৭জনকে আসামি করে বিশ্বনাথ থানায় মামলা দায়ের করেন দিনমজুর রিপন (মামলা নম্বর ১৮)।

মামলায় মারুফ ও আফজাল জামিনে থাকলেও আব্দুল হান্নান (৪৬) নামে পূর্ব দশপাইকার অপর এক আসামি এখনও পলাতক রয়েছে।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ