নিজ গ্রামে সম্মাননা পেলেন সাংবাদিক নেতা ছামির মাহমুদ কৃতিজনেরা

প্রকাশিত:শুক্রবার, ১৯ নভে ২০২১ ১০:১১

নিজ গ্রামে সম্মাননা পেলেন সাংবাদিক নেতা ছামির মাহমুদ কৃতিজনেরা

সুরমাভিউ:-  সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলার পাটলি ইউনিয়নের মইজপুর গ্রামের কৃতী সন্তান সিলেট জেলা প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ও ডেইলি মনিং এক্সপ্রেস এর সিলেট ব্যুরো চিফ ছামির মাহমুদ, সিলেট জেলা আইনজীবী সমিতির সদস্য অ্যাডভোকেট মতিউর রহমানসহ পাঁচজন নিজ গ্রামে সম্মাননা পেয়েছেন।

বৃহস্পতিবার (১৮ নভেম্বর) বিকেলে যুক্তরাজ্যে বসবাসরত প্রবাসীদের নিয়ে গঠিত ক্রিয়েটিভ এ্যাকশন ট্রাস্ট ইউকে মইজপুর এর উদ্যোগে মইজপুর গ্রামে সম্মাননা প্রদান অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন ক্রিয়েটিভ এ্যাকশন ট্রাস্ট ইউকে মইজপুরের ট্রাস্টি, বিশিষ্ট সমাজসেবক সিরাজ মিয়া ও ট্রাস্টি গুলবাহার বেগম। এতে সম্মানিত অতিথির বক্তব্য রাখেন, সিলেট জেলা প্রেসক্লাব সাধারণ সম্পাদক ছামির মাহমুদ এবং অ্যাডভোকেট মতিউর রহমান।

যুক্তরাজ্য থেকে সভায় ভার্চুয়ালি বক্তব্য রাখেন, ট্রাস্টের চেয়ারম্যান ছদরুল হক, ভাইস চেয়ারম্যান কদ্দুছ মিয়া, সেক্রেটারি আফরোজ আলী, ট্রাস্টি আবদুস সালেহ, ট্রাস্টি তরাজ মিয়া, ট্রাস্টি আবদুল হান্নান, ট্রাস্টি আনোয়ার হোসেন, ট্রাস্টি মতছির আলী।

গ্রামের প্রবীণ মুরব্বি আবদুল খালিকের সভাপতিত্বে ও যুবনেতা কয়ছর মিয়ার পরিচালনায় সভায় বক্তব্য রাখেন শাহ আবদুন নুর, মাওলানা ফখরুদ্দিন প্রমূখ। সভায় আনুষ্ঠানিকভাবে সিলেট জেলা প্রেসক্লাব সাধারণ সম্পাদক ছামির মাহমুদের হাতে সম্মাননা ক্রেস্ট তুলে দেয়া হয়। এছাড়া অ্যাডভোকেট মতিউর রহমান, সাবেক ইউপি সদস্য ও বিশিষ্ট সমাজসেবী মো. ছমরু মিয়া, গ্রামের সালিশ ব্যক্তিত্ব প্রবীণ মুরব্বি সোনাহর আলী, অবসরপ্রাপ্ত পুলিশ সদস্য মো. এরফান আলীকে সম্মাননা ক্রেস্ট প্রদান করা হয়।

সভায় প্রবীণ মুরব্বিদের এবং গ্রামের জামে মসজিদের ইমাম, মোয়াজ্জিন, কোরআনে হাফেজদের মধ্যে ট্রাস্টের পক্ষ থেকে উন্নতমানের পাঞ্জাবি ও শাল উপহার দেওয়া হয়। পাশাপাশি গ্রামের প্রবীণ মহিলাদের ঘরে ঘরে শীবস্ত্র হিসেবে উন্নতমানের কম্বল পৌছে দেয়া হয়। সভায় এলাকার প্রবীণ মুরব্বিগণসহ বিপুলসংখ্যক গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

সভায় সম্মানিত অতিথির বক্তব্যে সিলেট জেলা প্রেসক্লাব সাধারণ সম্পাদক ছামির মাহমুদ বলেন, যে গ্রামের জল-কাদায় বেড়ে উঠেছি, সেই গ্রামবাসী ও প্রবাসীদের পক্ষ থেকে দেওয়া এ সম্মান আমার জীবনের শ্রেষ্ঠ পাওয়া। যা স্বরণীয় হয়ে থাকবে। এরকম আয়োজন আমাকে পেশাগত দায়বদ্ধতা ও মানুষের কল্যাণে কাজ করতে উৎসাহিত করবে। ক্রিয়েটিভ এ্যাকশন ট্রাস্ট ইউকে মইজপুরের এই ব্যতিক্রমি উদ্যোগ প্রশংসার দাবি রাখে।

সভায় বক্তারা বলেন, ক্রিয়েটিভ এ্যাকশন ট্রাস্ট ইউকে মইজপুর গ্রামে যে অনন্য ব্যতিক্রমি উদ্যোগ নেওয়া হলো এ গ্রামের ইতিহাসে বিরল। নবগঠিত এই ট্রাস্ট গ্রামের অসহায় মানুষের কল্যাণে ও সমাজ উন্নয়নে অগ্রণী ভূমিকা রাখবে। আজকে গ্রামের কৃতিসন্তানদের যে সম্মাননা প্রদান করা হলো তা ভবিষ্যতেও অব্যাহত থাকবে। গুণিজনকে সম্মানিত করলে সমাজে আরও বেশি করে গুণিজনের জন্ম হয়। তাই আজকের এ আয়োজন প্রশংসার দাবিদার।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ