দোয়ারাবাজারে কিশোরীকে ধর্ষণের ঘটনা ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টা

প্রকাশিত:শুক্রবার, ১১ জুন ২০২১ ০৯:০৬

দোয়ারাবাজারে কিশোরীকে ধর্ষণের ঘটনা ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টা

দোয়ারাবাজার প্রতিনিধি:-  সুনামগঞ্জের দোয়ারাবাজার উপজেলায় গত ৯ জুন এক কিশোরীকে গণধর্ষণ করা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। আওয়ামী লীগের স্থানীয় এক নেতার নেতৃত্বে গত বৃহস্পতিবার রাতে সালিসের নামে ঘটনাটি ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টা করা হয়।

মেয়েটির পরিবার ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, বুধবার ৯ জুন রাতে উপজেলার এক কৃষকের ওই মেয়ে (১৮) বাড়ি রাতের খাওয়ার পরে ঘুমাতে যাওয়ার সময় তার প্রেমিক আব্দুস সালাম তার মোবাইলে ফোন দেয় দেখা করার কথা বলে। মেয়ে দেখা করতে রাজি না হওয়ায় রাতে বাড়ির শৌচালয় গেলে তার মুখ বেধে তাকে ধর্ষণ করে উপজেলার দোহালিয়া ইউনিয়নের ভবানী পুর গ্রামের মৃত ফরমান আলী ছেলে আব্দুস সালাম (৩৫)।

একপর্যায়ে চিৎকার শুনে বাবা-মা মেয়েটিকে উদ্ধার করে আব্দুস সালামের বাড়িতে নিয়ে গেলে তারা মেয়েটিকে স্বীকৃতি দেবেনা বলে সাফ জানিয়ে দেয়। ঘটনার পর মেয়েটির বাবা দোয়ারাবাজার থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

স্থানীয় সালিশ ব্যাক্তি আব্দুল মালিকের নিটক জানতে চাইলে তিনি বলেন- মেয়ে আমার বাড়িতে আছে এবং আগামী মঙ্গলবার বিচারের জন্য দোয়ারাবাজার থানার ওসি দেব দুলাল, সদর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুল খালিক, বীর মুক্তিযোদ্ধা নুরুল ইসলাম, টেংরাটিলার ছোবান সহ আমি এবং আমাদের এলাকার বিচারকরা তারিখ নির্ধারন করেন।

ধর্ষণের ঘটনায় থানা পুলিশ ও স্থানীয় দায়িত্বশীল ব্যক্তিবর্গ আদালতকে উপেক্ষা করে সালিশ-মীমাংসার বিষয়টি সচেতন মহলে তীব্র নিন্দা প্রকাশ করেন।

অভিযোগ তদন্তকারী কর্মকর্তা দোয়ারাবাজার থানার এসআই সমরাজের নিটক অভিযোগ তদন্তের বিষয়টি জানতে চাইলে তিনি প্রতিবেদকে বলেন- ওসি সাহেবের কাছে ফোন দেন, ওসি সাহেবের সবকিছু জানেন।