বিশ্বনাথে খুনি সাইফুলকে ধরিয়ে দিলে ৫ লাখ টাকা পুরস্কার ঘোষণা

প্রকাশিত:সোমবার, ০৩ মে ২০২১ ০৩:০৫

বিশ্বনাথে খুনি সাইফুলকে ধরিয়ে দিলে ৫ লাখ টাকা পুরস্কার ঘোষণা

বিশ্বনাথ প্রতিনিধি:-  সিলেটের বিশ্বনাথ উপজেলার ‘চাউলধনীর হাওরের বিরোধ’সহ নানা ঘটনার জের ধরে শনিবার (১ মে) বিকেলে দৌলতপুর ইউনিয়নের চৈতননগর গ্রামে ‘সাইফুলের পক্ষ ও নজির উদ্দিন পক্ষের’ সংঘর্ষ হয়। এতে গুলিবিদ্ধ হয়ে নিহত হন শাহজালাল ঘাঘুটিয়া উচ্চবিদ্যালয়ের ১০ম শ্রেণির ছাত্র সুমেল আহমদ শুকুর (১৭)। রোববার (২ মে) তার দাফন সম্পন্ন হয়েছে।

এদিকে, সুমেলের উপর গুলি বর্ষণকারী বহুল আলোচিত সাইফুল আলমকে ধরিয়ে দিতে ৫ লাখ টাকা পুরস্কার ঘোষণা করা হয়েছে। যুক্তরাজ্য প্রবাসী ও উপজেলার পশ্চিম চান্দশিরকাপন গ্রামের মোহাম্মদ কবির মিয়া ওই পুরস্কারের ঘোষণা দিয়েছেন।

উল্লেখ্য, শনিবার (১মে) বিকেলে উপজেলার ‘চৈতননগর-ইসলামপুর-টুকেরবাজার সড়ক’ ভরাটের জন্য নজির উদ্দিন পক্ষের কৃষি জমি থেকে জোরপূর্বকভাবে সাইফুল আলমের পক্ষের লোকজন মাটি কাটতে শুরু করেন। এসময় নজির উদ্দিন পক্ষের পক্ষের লোকজন মাটি কাটায় নিষেধ দেন। এ নিয়ে উভয় পক্ষের মধ্যে বাকবিতন্ডা শুরু হয়। এর একপর্যায়ে উভয়পক্ষ সংঘর্ষে লিপ্ত হন। সংঘর্ষ চলাকালে আলোচিত সাইফুল আলমের চালানো করা গুলিতে নজির উদ্দিনসহ তার পক্ষের ৫ জন গুলিবিদ্ধ হন। গুলিবিদ্ধদের মধ্যে নজিরের ভাতিজা ও ১০ম শ্রেণির শিক্ষার্থী সুমেল আহমদ শুকুর মৃত্যুবরণ করেন।

অপরদিকে, নজির উদ্দিন, তার (নজির) ভাই যুক্তরাজ্য প্রবাসী মনির উদ্দিন ও মানিক উদ্দিন (নিহত সুমেলের পিতা), ভাতিজা সালেহ আহমদকে গুরুত্বর আহত অবস্থায় সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ