বিশ্বনাথে দু’পক্ষের সংঘর্ষে আহত ১০

প্রকাশিত:শনিবার, ১৭ এপ্রি ২০২১ ১১:০৪

বিশ্বনাথে দু’পক্ষের সংঘর্ষে আহত ১০

বিশ্বনাথ প্রতিনিধি:-  সিলেটের বিশ্বনাথে জায়গা নিয়ে পূর্ব বিরোধের জের ধরে দু’পক্ষের সংঘর্ষে অন্তত ১০জন আহত হয়েছেন বলে জানা গেছে। শুক্রবার (১৬ এপ্রিল) বিকেল ৬টার দিকে উপজেলার জানাইয়া গ্রামের আফিজ আলী পক্ষ ও শামিম আহমদ পক্ষের মধ্যে এই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

সংঘর্ষে আফিজ আলী পক্ষের আহতরা হলেন- রিনা বেগম (৫৫), সুনু বেগম (৬০), রাকিব আলী (১৮), আলমাছ আলী (২০), সোনাবান বিবি (৭০) ও অন্ত:সত্ত্বা নারী হেলন বেগম (২৫)। শামিম আহমদ পক্ষের আহতরা হলেন- মোস্তাব আলী (৫০), নাজিম উদ্দিন (২৭), সেলিম মিয়া (৩৫), আসিক আলী (৪২) ও মিনারা বেগম (২৩)।

প্রত্যেক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, ঘরের পার্শ্ববর্তী জায়গা নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে শামিম আহমদ গংদর সাথে বিরোধ চলে আসছে আফিজ আলী গংদের। বিরোধপূর্ণ ওই জায়গায় শুক্রবার ইফতারের পূর্ব মুহুর্তে শামিম আহমদের বোন নাছিমা বেগম আবর্জনা ফেলতে গেলে এতে নিষেধ করেন আফিজ আলী পক্ষের লোকজন। তাদের মধ্যে কথা কাটাকাটির একপর্যায়ে দু’পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ শুরু হয়। উভয়র পক্ষের খবর পেয়ে থানা পুলিশের সদস্যরা ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন।

আফিজ আলীর অভিযোগ, তাদের জায়গায় ময়লা ময়লা আবর্জনা না ফেলতে নিষেধ করার পরও প্রতিপক্ষের লোকজন তা অমান্য করে ওই জায়গায় আবর্জনা ফেলতে গেলে আবারও নিষেধ করা হয়। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে শামিম আহমদ পক্ষের লোকজন তাদের উপর হামলা করেন এবং ঘরের জানালার গ্লাস ও বেরা ভাংছুর করেন। এতে বৃদ্ধা ও অন্ত:সত্ত্বা নারীসহ তাদের পক্ষের কয়েকজন আহত হয়েছেন।

তিনি বলেন, জায়গা সংক্রান্ত বিরোধে শামিম আহমদ পক্ষের বিরোদ্ধে বৃহস্পতিবার (১৫ এপ্রিল) থানায় একটি অভিযোগ প্রদান করেন একই গ্রামের নাজিম উদ্দিন। আর ওই অভিযোগে স্বাক্ষী হিসেবে তার (আফিজ) ভাইয়ের নাম থাকার কারণে তাদের উপর ক্ষিপ্ত হয়ে উঠেন শামীম আহমদ পক্ষের লোকজন। এর মূলত এ কারণেই পরিকল্পিতভাবে (শুক্রবার) তাদের উপর হামলা করা হয়েছে।অপরদিকে শামীম আহমদের অভিযোগ, সংঘর্ষের সময় তিনি বাড়িতে ছিলেন না। খবর পেয়ে তিনি সাথে সাথে বিষয়টি থানা পুলিশকে অবহিত করেন এবং পরবর্তীতে বাড়িতে ফিরে জানতে পারেন, তার বোন ওই জায়গায় ময়লা ফেলতে গেলে তাকে আফিজ আলী পক্ষের লোকজন আক্রমন করেন। একপর্যায়ে তারা (আফিজ আলী পক্ষ) বাড়িতে হামলা করে বসতঘরে ভাংচুর করেন। এতে তাদের পক্ষের কয়েকজন আহত কয়েছেন।

এ ব্যাপারে বিশ্বনাথ থানার অফিসার ইন-চার্জ (ওসি) শামীম মুসা বলেন, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এব্যাপারে লিখিত কোন অভিযোগ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে বলে তিনি জানান।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ