বিশ্বনাথে আগ্রহ কমেছে টিকায়, ফেরত ১০ হাজার ডোজ

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার, ০১ এপ্রি ২০২১ ১০:০৪

বিশ্বনাথে আগ্রহ কমেছে টিকায়, ফেরত ১০ হাজার ডোজ

বিশ্বনাথ প্রতিনিধি:-  সিলেটের বিশ্বনাথ উপজেলায় করোনাভাইরাসের টিকা প্রথম দিকে দিনে শতাধিক লোক নিলেও, বর্তমানে এ সংখ্যা খুুবই অপ্রতুল। এ কারণে টিকার মেয়াদ শেষ হবার পূর্বে অন্যত্র ব্যবহারে জন্যে ১০ হাজার ৫শ ডোজ টিকা জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয়ে ফেতর পাঠিয়েছে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সূত্র জানায়, ৭ ফেব্রুয়ারি উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্স-এর টিকাদান কেন্দ্রে ১৩শ ৫৫ ভায়েল টিকা নিয়ে টিকাদান কর্মসূচি শুরু হয়। ভয় ও জড়তা কাটিয়ে টিকা নিতে আগ্রহী হন সাধারণ মানুষ।

প্রতিদিন বাড়ে টিকা গ্রহীতাদের উপস্থিতি। কিন্তু হুট করেই আগ্রহ কমে আসায় টিকা নিতে এ পর্যন্ত রেজিষ্ট্রেশন করেছেন মাত্র ৪ হাজার ১শত ৩৭জন।

২৯ মার্চ সর্বশেষ টিকা গ্রহণ করেছেন ১৯জন নারী-পুরুষ। এ নিয়ে টিকা গ্রহীতাদের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২ হাজার ৮শ ২১জন, ব্যবহার হয়েছে মাত্র ২শ ৮৮ ভায়েল টিকা। টিকা নিতে অনীহা থাকায় ১ হাজার ৫০ ভায়েল (১০ হাজার ৫শ ডোজ) টিকা হাসপাতালে সংরক্ষিত ছিল।

এসব টিকার মেয়াদ আগামী ১৬ এপ্রিল পর্যন্ত রয়েছে। ফলে মেয়াদ শেষের আগেই টিকাগুলো অন্যত্র ব্যবহারের জন্য ১০ মার্চ ৮ হাজার ভায়েল এবং ২৪ মার্চ আরও ২শত ৫০ ভায়েল ভ্যাকসিন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে ফেরত পাঠানো হয়েছে।

এ বিষয়ে কথা হলে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. আবদুর রহমান মুসা সাংবাদিকদের বলেন, ‘মেয়াদ উর্ত্তীণের পূর্বে অন্যত্র ব্যবহারের জন্যে এগুলো ফেরত পাঠানো হয়েছে।

তবে টিকার কোন সংকট নেই আমাদের। এখনো ১৭০ ডোজ টিকা সংরক্ষিত রয়েছে। আগ্রহীরা এই টিকা নিতে পারবেন।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ