মৌলভীবাজারে হেফাজত ইসলামের ডাকা শান্তিপূর্ণ সকাল-সন্ধ্যা হরতাল

প্রকাশিত:রবিবার, ২৮ মার্চ ২০২১ ০৬:০৩

মৌলভীবাজারে হেফাজত ইসলামের ডাকা শান্তিপূর্ণ সকাল-সন্ধ্যা হরতাল
মোঃ তাজুদুর রহমান:-  ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বাংলাদেশ সফরকে কেন্দ্র করে গত ২৬ মার্চ ঢাকার জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমে মুসল্লিদের সাথে পুলিশ ও ক্ষমতাসীন দলের নেতাকর্মীদের ত্রিমুখী সংঘর্ষ, চট্টগ্রামের হাটহাজারিতে হেফাজত নেতাকর্মীদের সাথে পুলিশের ভয়াবহ সংঘর্ষে চারজন নিহত ও ব্রাক্ষণবাড়িয়ায় সংঘর্ষে হেফাজতের আরেক কর্মী নিহতের প্রতিবাদে কেন্দ্র ঘোষিত কর্মসূচীর অংশ হিসেবে মৌলভীবাজারে চলছে হেফাজতে ইসলামের ডাকা শান্তিপূর্ণ সকাল-সন্ধ্যা হরতাল।
রবিবার (২৮ মার্চ) ভোর থেকেই হেফাজতের ডাকা হরতাল কর্মসূচী ঘিরে শহরের প্রতিটি পয়েন্টে সতর্ক অবস্থায় থাকতে দেখা যায় পুলিশকে। এসময় রাস্তায় টহল দিতে দেখা যায় বর্ডার গার্ড (বিজিবি) কে। তবে কোথাও চোখে পড়েনি হেফাজত কর্মীদের পিকেটিংয়ের চিত্র। অনেকটা পিকেটিং ছাড়াই শুরু হয় হরতাল কর্মসূচী। হরতালকে কেন্দ্র সাধারণ মানুষের মধ্যে আতঙ্ক ও উদ্বেগ লক্ষ্য করা গেছে।
সরেজমিন ঘুরে দেখা যায়, মৌলভীবাজার শহরমুখী প্রতিটি সড়কে সিএনজি চালিত অটোরিকসা, প্রাইভেট কার, টমটম, মোটরসাইকেলসহ ছোট ছোট যানবাহন চলাচল স্বাভাবিক থাকলেও মৌলভীবাজার থেকে ঢাকাসহ দেশের অন্যান্য অঞ্চলের সাথে দূর পাল্লার বাস চলাচল বন্ধ রয়েছে। ঢাকা থেকেও মৌলভীবাজারমূখী দূরপাল্লার কোনো বাস আসার দৃশ্য চোখে পড়েনি।
শহরের ঢাকা-সিলেট মহসড়কে বাসস্ট্যান্ড এলাকার রাস্তার দুপাশে সারিবদ্ধ ভাবে দাঁড়িয়ে আছে হানিফ পরিবহন, শ্যামলী পরিবহনসহ দূর পাল্লার বাসগুলো। তবে সকাল ৬ থেকে ১০টা পর্যন্ত ঢাকার উদ্দেশ্যে এনা পরিবহনের ৩টি বাস মৌলভীবাজার থেকে ছেড়ে যায় বলে জানিয়েছেন এনা পরিবহনের ম্যানেজার খছরু আহমদ। তিনি জানান পুলিশের নিরাপত্তা আশ্বাস পেয়ে আমরা কিছু সংখ্যক গাড়ি ছেড়ে দিলেও বর্তমানে হবিগঞ্জের মাধবপুরে গিয়ে ব্যারিকেডের মধ্যে আটকে আছে ঢাকামূখী এনা পরিবহনের ৩টি বাস।
জেলা প্রশাসক মীর নাহিদ আহসান জানান,শহরের আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে এবং শান্তি শৃঙ্খলা রক্ষায় শহরের রাস্তায় বিজিবির টহল অব্যাহত রয়েছে।
মৌলভীবাজার সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জিয়াউর রহমান জিয়া জানান,হরতালকে কেন্দ্র করে যেকোন ধরনের পরিস্থিতি এড়াতে সর্বোচ্চ সংখ্যক পুলিশ মোতায়েন রয়েছে শহরে।
হেফাজত নেতা ও খেলাফত মজলিসের মৌলভীবাজার জেলা সভাপতি মাওলানা আহমদ বিলাল, জানান,শহরে পুলিশের শক্ত অবস্থানের কারনে পিকেটিং না হলেও শহরের বাহিরে সদর উপজেলার কনকপুর, মুন্সিবাজার, শেরপুর, সমশেরনগর সড়ক ও গিয়াসনগর ইউনিয়নের ইমামবাজার এলাকায় হেফাজত কর্মীরা শক্ত পিকেটিং করছে। সেখান থেকে কোনো ধরনের যানবাহন চলাচল করছেনা। সদর উপজেলার দুর্লভপুরে হরতাল চলাকালে হেফাজতের নেতাকর্মীরা জোহরের নামাজ আদায় করতে দেখা গেছে।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ