বিশ্বনাথে অগ্নিদগ্ধ পরিবারের সাহায্যে প্রয়োজন দেড় লক্ষ টাকা

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার, ২৫ মার্চ ২০২১ ০১:০৩

বিশ্বনাথে অগ্নিদগ্ধ পরিবারের সাহায্যে প্রয়োজন দেড় লক্ষ টাকা

মো. আবুল কাশেম, বিশ্বনাথ প্রতিনিধি:-  সিলেটের বিশ্বনাথ উপজেলার রামপাশা ইউনিয়নের শ্রীধরপুর গ্রামে গত সোমবার গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরনে অগ্নিদগ্ধ পরিবারের ৩ সদস্যের শারীরিক অবস্থা এখন সংকটাপন্ন। প্রতিনিয়ত দারিদ্রতার সাথে লড়াই করা ওই পরিবারটির আর্থিক অবস্থা এতই করুন যে, সমাজের বিত্তবান ও প্রবাসীদের আর্থিক সহায়তা ছাড়া বেঁচে থাকার এই লড়াইয়ে তাদের টিকে থাকা কঠিন হবে। প্রাথমিক পর্যায়ে মারাত্মকভাবে অগ্নিদগ্ধ ৩ জনের চিকিৎসার জন্য নূন্যতম ১ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা প্রয়োজন।

অগ্নিদগ্ধ পরিবারের প্রত্যাশা প্রবাসী অধ্যুষিত বিশ্বনাথের মানুষ কেবল একটু সহযোগিতার হাত প্রসারিত করলে তারা বেঁচে থাকার নতুন এক সন্ধান পাবে। আমরাও বিশ্বাস করি আমাদের সমাজের অন্তত ১৫ জন প্রবাসী কিংবা বিত্তবান ১০ হাজার টাকা করে অথবা ৩০ জন ৫ হাজার টাকা করে প্রদান করেন তাহলে হয়ত এই সব মহৎ প্রাণ মানুষদের জন্য মানবিকতার সাফল্যের নতুন এক গল্প রচিত হবে। আমার বিশ্বাস নিশ্চয় হবে, কারণ অতীতে এরকম ১১ টি মানবিক আবেদনে সাড়া দিয়ে আমাদের প্রবাসী স্বজন ও সমাজের বিত্তবানরা ২৬ লক্ষ টাকারও বেশী আর্থিক সহায়তা করে বিশ্বনাথের সুনাম বিশ্বদরবারে অনন্য এক উচ্চতায় নিয়ে গেছেন।

জানা গেছে, গত ২২ মার্চ সোমবার সন্ধ্যায় বিশ্বনাথ উপজেলার রামপাশা ইউনিয়নের শ্রীধরপুর গ্রামের দারিদ্র ওয়ারিছ আলীর (৭০) রান্নাঘরে গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফারিত হয়ে তার স্ত্রী দিলারা বেগম (৬০) , পুত্র মইনুল ইসলাম ( ২৬) ও অপর পুত্র ফয়ছল আহমদ (২৩) মারাত্মকভাবে অগ্নিদগ্ধ হন। তাদেরকে উদ্ধার করতে গিয়ে প্রতিবেশী সহ আর ৩ জন আহত হন। এ সময় অগ্নিদগ্ধ লোকজনদেরকে উদ্ধার করে সিলেটে নিয়ে যাওয়া হয় । এর উপরে উল্লিখিত ৩ জনের অবস্থা সংকটাপন্ন হলে তাদেরকে ঢাকায় প্রেরণ করা হয় । শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত উক্ত ৩ জনই আইসিইউতে রয়েছেন বলে জানা গেছে।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ