তাহিরপরের যাদুকাটায় কোয়ারি খনন করে বালু পাথর লুটকালে আটক ১

প্রকাশিত:শনিবার, ২০ মার্চ ২০২১ ১১:০৩

তাহিরপরের যাদুকাটায় কোয়ারি খনন করে বালু পাথর লুটকালে আটক ১

তাহিরপুর প্রতিনিধি:-  জাদুকাটা নদী তীরে অবৈধভাবে কোয়ারি খননের মাধ্যমে বালু পাথর লুটের ঘটনায় সুনামগঞ্জের তাহিরপুরে কিরন রায় নামে এক ব্যাক্তিকে আটক করেছেন থানা পুলিশ। কিরন উপজেলার বাদাঘাট ইউনিয়নের গড়কাটি গ্রামের প্রয়াত বরদা রায়ের ছেলে।’
শনিবার মামলা দায়েরের পর আদালতের মাধ্যমে তাকে জেলা কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

এরপুর্বে শুক্রবার রাতে উপজেলার জাদুকাটা নদী তীরবর্তী এলাকায় কোয়ারি খননকালে প্রায় পাঁচ লাখ টাকা মুল্যের নুরি পাথর জব্দ কারণসহ তাকে আটক করেন থানা পুলিশ।
পরবর্তীতে রাতে কিরনসহ তার দুই সহযোগী উপজেলার মোল্লাপাড়ার মৃত আহমদ খানের ছেলে সিঙ্গাপুর ফেরত আজাদ খান প্রকাশ বাবুল সিঙ্গাপুরী, পাশর্^বর্তী ঘাগড়া গ্রামের আব্দুল হাই’র ছেলে জাহাঙ্গীর আলমকে পলাতক দেখিয়ে এবং ৩ হতে ৪ জনকে অজ্ঞাতনামা আসামী করে পুলিশ বাদী হয়ে থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

পুলিশ জানায়, সরকারিভাবে নিষেধাজ্ঞার পরও উপজেলার গড়কাটি গ্রামের কিরন রায় তার সহযোগীদের নিয়ে জাদুকাটা নদীতে দ্বীর্ঘ দিন ধরেই রাতের আঁধারে অনধিকার প্রবেশ করে নদীর তীর কেটে কোয়ারি খননের মাধ্যমে লাখ লাখ টাকার খনিজ বালু পাথর লুটে অন্যত্র বিক্রি এমনকি কয়েক লাখ টাকা মুল্যের পাথর মজুদ করে আসছিলেন।’
অভিযোগ পেয়ে শুক্রবার রাতে থানা পুলিশের একটি টিম অভিযানে নেমে কোয়ারি এলাকা হতে পাঁচ লাখ টাকা মুল্যের পাঁচ হাজার ঘনফুট নুরি পাথর জব্দ করার সময় কিরনকে আটক করলে তার অন্যান্য সহযোগীরা পালিয়ে যান।

শনিবার রাতে পুলিশ সুপার মো. মিজানুর রহমান বিপিএম বলেন, কেউ আইনের উর্ধ্বে নন, বে-আইনিভাবে কোয়ারি খননের পর নদীর তীর কেটে বালু পাথর উক্তোলন কাজে যত বড় প্রভাবশালী জড়িত থাকুন না কেন তাকে আইনের আওতায় নিয়ে আসতে পুলিশ বদ্ধ পরিকর রয়েছেন।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ