রাতারগুল প্রবেশ ফি-পুনঃনির্ধারণের দাবিতে সিলেট ট্যুরিজম ক্লাবের স্বারকলীপি

প্রকাশিত:সোমবার, ১৫ মার্চ ২০২১ ১০:০৩

রাতারগুল প্রবেশ ফি-পুনঃনির্ধারণের দাবিতে সিলেট ট্যুরিজম ক্লাবের স্বারকলীপি

সুরমাভিউ:-  জলাবন রাতারগুলে প্রবেশ ফি-পুনঃনির্ধারণের দাবিতে জেলা প্রশাসক সিলেট এবং বিভাগীয় বন কর্মকর্তা সিলেট রেঞ্জ বরাবর স্বারকলীপি দিয়েছে পর্যটন বিষয় সেচ্ছাসেবী সংগঠন সিলেট ট্যুরিজম ক্লাব।

সোমবার সকালে ক্লাবের পক্ষ থেকে দেওয়া স্বারকলীপি গ্রহন করেন জেলা প্রশাসক এম কাজি এমদাদুল ইসলাম এবং বিভাগীয় বন কমৃকর্তা এস এম সাজ্জাদ হোসেন।
স্বারকলীপিতে উল্লেখ করা হয় ট্যুরিজম ক্লাব পর্যটকদের স্বার্থরক্ষা এবং পর্যটন উন্নয়নে কাজ করার পাশাপাশি সিলেটের পর্যটন শিল্প উন্নয়নের সরকারের বিভিন্ন প্রচেষ্টাকে সহযোগিতা করে থাকে।অতিসম্প্রতি জলাবন রাতারগুল প্রবেশে বন বিভাগ একটি ফি- নির্ধারণ করেছে। যা গত ১২ এপ্রিল থেকে কার্যকর করা হচ্ছে।এতে জনপ্রতি একজন পর্যটককে ২৫০ টাকা অতিরিক্ত খরচ বহন করতে হবে। এ নিয়ে ইতিমধ্যে পর্যটক এবং পর্যটন ব্যবসায়িদের মাঝে বিরূপ প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে। ফলে সিলেটের সম্ভবনাময় পর্যটন শিল্প বাঁধার সম্মুখিন হওয়ার আশংখা রয়েছে। এতে ক্ষতিগ্রস্থ হবে এই শিল্পে জড়িতরা। পর্যটন সংগঠন হিসাবে সিলেট ট্যুরিজম ক্লাবও রাতারগুল প্রবেশে নুন্যতম ফি- নির্ধারণ করা হোক সেটা চায়। তবে এই ফি -যেন সহনীয় এবং গ্রহনযোগ্য হয় সেটাই সবার কাম্য।

২টি স্বারকলীপিতে অতিসত্তর জলাবন রাতারগুলে প্রবেশ ফি-পুনঃনির্ধারণ করে সিলেটের পর্যটন শিল্প বিকাশে সহযোগিতা হাত বাড়িয়ে দেওয়ার জন্য জেলা প্রশাসক সিলেট এবং বিভাগীয় বন কর্মকর্তা সিলেট রেঞ্জ বরাবর অনুরোধ জানানো হয়।

সিলেট ট্যুরিজম ক্লাবের পক্ষে উপস্থিত ছিলেন ক্লাব সভাপতি হুমায়ুন কবির লিটন, সহ -সভাপতি দেলওয়ার হোসেন রানা, ফয়জুল হাসান.রোটারিয়ার আব্দুল হান্নান জুয়েল, সাধারন সম্পাদক ফখরুল ইসলাম মিয়া, সাংগঠনিক সম্পাদক নুর আলম, অর্থ সম্পাদক আব্দুল আহাদ, অফিস সম্পাদক সৈয়দ মাহমুদুল হাসান, আপ্যায়ন সম্পাদক নুরুল ইসলাম চৌধুরী বাবুল, কার্যকরি সদস্য মাছুম আহমদ জায়গিরদার প্রমুখ।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ