নিরাপদ ও পরিবেশবান্ধব পণ্য সরবরাহ নিশ্চিত করুন – বিভাগীয় কমিশনার

প্রকাশিত:সোমবার, ১৫ মার্চ ২০২১ ০৬:০৩

নিরাপদ ও পরিবেশবান্ধব পণ্য সরবরাহ নিশ্চিত করুন – বিভাগীয় কমিশনার

সুরমাভিউ:-  সারা দেশের ন্যায় সিলেটে ও সোমবার নানা কর্মসূচীর মধ্য দিয়ে উদযাপিত হয়েছে বিশ্ব ভোক্তা-অধিকার দিবস-২০২১। দিবসটি উদযাপন উপলক্ষ্যে জাতীয় ভোক্তা-অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর সিলেট, সিলেট জেলা প্রশাসন এবং ক্যাব সিলেট এর যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত এসব কর্মসূচীর মধ্যে উল্লেখযোগ্য ছিল সিলেট মহানগরীর বিভিন্ন স্থানে দিনব্যাপী ট্রাক-শো, প্রামাণ্য চিত্র প্রদর্শন ও সচেতনতামূলক জারিগান প্রচার, নগরের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টে সচেতনমূলক ব্যানার লাগানো, লিফলেট ও পাম্পলেট বিতরণ এবং ভোক্তা-অধিকার বিষয়ক ডকুমেন্টারি ও ভিডিও প্রদর্শন। এছাড়া বিকেল ৩ টায় ভোক্তা-সাধারণ, ব্যবসায়ী ও শহরের গণ্যমান্য ব্যাক্তিবর্গের অংশগ্রহণে সিলেট জেলা পরিষদ মিলনায়তনে এক আলোচনা সভা অনুষ্টিত হয়।

সিলেটের জেলা প্রশাসক এম কাজী এমদাদুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিতব্য আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সিলেটের বিভাগীয় কমিশনার ও সরকারের অতিরিক্ত সচিব মো. মশিউর রহমান এনডিসি।

এতে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সিলেট রেঞ্জের ডিআইজি মফিজ উদ্দিন আহমদ পিপিএম, সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার মো. নিশারুল আরিফ ও সিলেট চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ড্রাস্ট্রি এর সভাপতি আবু তাহের মো. শোয়েব।

এবারে দিবসের প্রতিপাদ্য বিষয় ছিল ‘মুজিববর্ষে শপথ করি, প্লাস্টিক দূষণ রোধ করি’। প্রতিপাদ্য বিষয়ের উপর প্রবন্ধ উস্থাপন করেন শাহাজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের কেমিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং এন্ড পলিমার সায়েন্স বিভাগের অধ্যাপক ও বিভাগীয় প্রধান ড. আবু ইউসুফ।

আলোচনা সভার শুরুতেই স্বাগত বক্তব্য রাখেন জাতীয় ভোক্তা-অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর সিলেট এর উপ পরিচালক মো. ফখরুল ইসলাম।

আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে জনসাধারণের প্রতি প্লাস্টিক ও প্লাস্টিকজাত দ্রব্য ব্যবহার পরিহার করার আহবান জানিয়ে সিলেটের বিভাগীয় কমিশনার মো.মশিউর রহমান এনডিসি বলেন, প্লাস্টিক যেমন পরিবেশের ক্ষতি করে তেমনি তা ভোক্তার স্বাস্থের জন্যও মারাত্বক ক্ষতি বয়ে আনে। তিনি বলেন, প্লস্টিক ৫০০ বছরেরও বেশি সময় অপচনশীল থেকে তা পরিবেশের ক্ষতি করে। একই সাথে প্লাস্টিকের মধ্যে যেসব উপদান রয়েছে তা মানবদেহে ক্যানসারের ঝুঁকি বাড়ায়। দৈনন্দিন জীবনে ক্রমশই প্লাস্টিকের ব্যবহার বৃদ্ধিতে উদ্বেগ প্রকাশ করে তিনি আরো বলেন, এক সময় হাটবাজারে খাদ্যপণ্য, তেল, বাজার-সদাই ইত্যাদি পরিবহনে কাঁচের বোতল কিংবা কাগজের ব্যবহার থাকলেও বর্তমানে সবকিছুতেই প্লাস্টিকের ব্যবহার বহুল প্রচলিত হয়েছে। বর্তমানে খাবার পানি, কোমল পানীয়, শিশু খাদ্য ও ঔষুধ সামগ্রি থেকে শুরু করে প্রায় সকল পণ্য বাজারজাতকরণ, পরিবহণ ও সংরক্ষণে বিপুল পরিমাণে প্লাস্টিক ও পলিথিন ব্যবহার হচ্ছে। যা আমাদের পরিবেশ ও স্বাস্থের জন্য হুমকির মুখে ঠেলে দিচ্ছে। তিনি বলেন, ভোক্তার জন্য নিরাপদ পণ্য সরবরাহ নিশ্চিত করার সাথে সাথে তার জীবন ও পরিবেশের নিরাপত্তাও নিশ্চিত করতে হবে। এসময় তিনি সর্বস্তরের ভোক্তা ও ব্যবসায়ীদের আরো সচেতন হওয়ার পাশাপাশি নিরাপদ ও পরিবেশবান্ধব পণ্য সরবরাহ নিশ্চিত করতে সংশ্লিষ্ট দপ্তর সমূহের প্রতি আহবান জানান।

অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্যে সিলেটের জেলা প্রশাসক এম কাজী এমদাদুল ইসলাম বলেন, পরিবেশের কোন ক্ষতি না করে সিলেটবাসীর জন্য নিরাপদ ভোগ্য পণ্য নিশ্চিত করতে জেলা প্রশাসন, জাতীয় ভোক্তা-অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর ও অন্যান্য সকল সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানসমূহ একযোগে কাজকরে যাচ্ছে। সামনের দিনগুলোতেও এ ধারা অব্যাহত থাকবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যাক্ত করেন।

আলোচনা সভায় অন্যান্যদের মধ্যে আরো বক্তব্য রাখেন ক্যাব সিলেটের সভাপতি জামিল চৌধুরী, বিশিষ্ট সাংবাদিক ও কলামিষ্ট আফতাব চৌধুরী, ফুলকলি ফুড প্রোডাক্টস এর ডিজিএম মো: জসিম উদ্দিন, রেস্টুরেন্ট মালিক সমিতি সিলেট জেলার সভাপতি খালেদ আহমদ, সিলেট ডিস্ট্রিক ক্যাটারার গ্রুপের সভাপতি শান্ত দেব, কেমিস্ট এন্ড ড্রাগিস্ট সমিতি সিলেট জেলার সিনিয়র সহ সভাপতি এ টি এম মোশাহিদ উদ্দিন, সেবা গ্রহিতা সাদ উদ্দিন ছাদিক ও কালিঘাট ব্যাবসায়ী সমিতির সাধারণ সম্পাদক দিলোয়ার হোসেন প্রমুখ । বিজ্ঞপ্তি

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ