মামুনুল হকের ওয়াজ মাহফিলে লাখো মানুষের ঢল, নিরাপত্তায় ২০০ যুবক

প্রকাশিত:রবিবার, ১৪ ফেব্রু ২০২১ ১১:০২

মামুনুল হকের ওয়াজ মাহফিলে লাখো মানুষের ঢল, নিরাপত্তায় ২০০ যুবক

ছাতক প্রতিনিধি:-  জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাস্কর্য অপসারণের হুমকিদাতা হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা মুহাম্মদ মামুনুল হকের ওয়াজ মাহফিলে লাখো মানুষের ঢল, তীব্র শীত উপেক্ষা ও ২ শতাধিক যুবক নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে সুনামগঞ্জ জেলার ছাতক উপজেলায় উত্তর খুরমা ইউপি জামিয়া ইসলামিয়া হাফিজিয়া দারুন কোরআন মৈশাপুর মাদ্রাসার ৪৩ তম বার্ষিক ইসলামী মহাসম্মেলন অনুষ্টানে রাত ৯টা থেকে সময় প্রধান মাওলানা মুহাম্মদ মামুনুল হক অতিথি হিসেবে তার বয়ান শুরু করে প্রায় ঘন্টা পর বয়ান শেষ করেন।

হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা মুহাম্মদ মামুনুল হক বলেছেন সরকার আলেম-ওলামাদের প্রতিবাদি কন্ঠ প্রতিরোধ করতে চেয়েছে। এসব ঘটনার প্রতিবাদ করতে গিয়ে সরকারের প্রতিহিংসার শিকার হয়েছি আমি। মাওলানা কামাল উদ্দিনের সভাপতি ও হাফিজ মাওলানা আব্দুস সামাদের পরিচালনায় অনুষ্টিত মহা সম্মেলনের শনিবার সুনামগঞ্জ জেলার ছাতক উপজেলায় উত্তর খুরমা ইউপি জামিয়া ইসলামিয়া হাফিজিয়া দারুন কোরআন মৈশাপুর মাদ্রাসার ৪৩ তম বার্ষিক ইসলামী মহাসম্মেলন অনুষ্টানে রাত ৯টায় প্রধান অতিথি হিসাবে মাওলানা মুহাম্মদ মামুনুল হক এসব কথা বলেন।

এ মহা সম্মেলনটি বাস্তবায়ন করতে মাদরাসা মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষ নিরাপতায় সুরক্ষা রাখতে ২ শতাধিক সেচ্ছাসেবক টিম গঠন করেছে। শীত উপেক্ষা করে মামুনুল হকে মাহফিলে লাখো মানুষের ঢল নামে।

স্থানীয় সূত্র জানায়,মামুনুল হকের ওয়াজ শুনতে শিশু থেকে শুরু করে নানা শ্রেনীর লাখো মানুষের সমাগম ঘটে। বিশেষ করে সিলেট,হবিগঞ্জ মৌলভীবাজার ও সুনামগঞ্জ সহ বেশ কয়েকটি জেলা-উপজেলা থেকে এসব লোকজন তার মাহফিলে অংশগ্রহণ করেছেন।

শনিবার সকাল থেকে দিনব্যাপি সিলেট সুনামগঞ্জ সড়কে হেফাজত নেতা মাওলানা মুহাম্মদ মামুনুল হক আগমন লক্ষ্যে নিরাপত্তার স্বাথে সিলেট থেকে ছাতকে প্রবেশ গামী গাড়িগুলো চেক পোষ্ট বসিয়ে গাড়িগুলো তল্লাসি করেছেন সুনামগঞ্জ জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ত্রুাইম) সাহেব আলী পাঠানের নেতৃত্বে একদল পুলিশ। শনিবার ইসলামী মহা সম্মেলন শুরু হওয়ার আগে মৈশাপুর গ্রামে আয়োজনকারীদের সঙ্গে পুলিশ প্রশাসনের উদ্দ্যোগে একটি জরুরী বৈঠক অনুষ্টিত হয়।এ বৈঠকে পুলিশ প্রশাসন সার্বিক বিষয়ে মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষ সঙ্গে আলোচনা করে সরকারে বিরুদ্ধে কোন ধরনের উস্কানিমুলক বক্তব্য না দেয়ার শর্তে হেফাজত নেতা মাওলানা মুহাম্মদ মামুনুল হক কে প্রশাসন অনুমতি দেয়া হয়।

এব্যাপারে মাদ্রাসার মুহতামিম হাফিজ মাওলানা আব্দুস সামাদ জানান, রাজনৈতিক, সামাজিক, জনপ্রতিনিধি, প্রশাসন ও গন্যমাধ্যম কমীসহ ওয়াজ মাহফিলে আগত সকলশ্রেনী মানুষ অংশ গ্রহন করে ইসলামী মহাসম্মেলন সফল করে তোলায় ধন্যবাদ জানিয়েছে।

এব্যাপারে থানার অফিসার ইনচাজ ওসি শেখ নাজিম উদ্দিন জানান, মাহফিলে হাজার হাজার বেশি মুসল্লি উপস্থিত ছিলেন। সব মিলিয়ে শান্তি পূর্ণভাবে মাহফিল শেষ হয়েছে। কোনো ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি। মাহফিল শেষে সবাই নিরাপদে বাড়ি ফিরেছেন।

সুনামগঞ্জ অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সাহেব আলী পাঠান বলেন, মাওলানা মুহাম্মদ মামুনুল হক মাহফিল ঘিরে পুলিশ মোতায়েন করেছিলাম। পাশাপাশি বিভিন্ন বাহিনীর সদস্য নিরাপত্তার দায়িত্বে পালন করছেন।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ