ট্রাম্পের শয্যাসঙ্গী হওয়া ছিল সবচেয়ে বিরক্তিকর, দাবি পর্নতারকার

প্রকাশিত:রবিবার, ১৪ ফেব্রু ২০২১ ০৮:০২

ট্রাম্পের শয্যাসঙ্গী হওয়া ছিল সবচেয়ে বিরক্তিকর, দাবি পর্নতারকার

সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক এক তথ্য পাওয়া গেল পর্নতারকা স্টর্মি ড্যানিয়েলসের কাছ থেকে। প্রেসিডেন্ট থাকাকালীন এর আগেও এই পর্নতারকাকে নিয়ে বিতর্কের জন্ম দেয় ট্রাম্প। সাবেক প্রেসিডেন্টের বিরুদ্ধে মামলাও করেছেন এই পর্নতারকা। তিনি জানালেন, ট্রাম্পের বিরুদ্ধে তার লড়াই মাত্র শুরু।

পর্নতারকা স্টর্মিকে চুপ করাতে সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্টের অ্যাটর্নি থাকাকালীন মাইকেল কোহেন অনেক চেষ্টা করেছিলেন। টাকা দিয়ে মুখ বন্ধ করতে চাওয়ার অভিযোগে জেলও খাটতে হয় তাকে। সেই ট্রাম্প সমর্থকই এখন পর্ন তারকার সাক্ষাৎকার নিয়ে অনেক বিস্ময়কর তথ্য সামনে আনলেন। ২০১৬ সালের রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের সময় স্টর্মির সঙ্গে আচরণ নিয়ে ক্ষমাও চেয়েছেন কোহেন। এদিকে, ট্রাম্পের শয্যাসঙ্গিনী হওয়ার ‘বিরক্তিকর’ অভিজ্ঞতা নিয়ে মুখ খুললেন পর্নতারকা স্টর্মি। তিনি বললেন, ‘আমার জীবনের ওই ৯০ সেকেন্ড সবথেকে খারাপ সময়। নিজের প্রতিই এখন ঘৃণা হয় এজন্য।

এর আগেও এই নিয়ে মন্তব্য করেছিলেন স্টর্মি। ২০১৬ সালে তার বই ‘ফুল ডিসক্লোজার’-এ লেখেন, ট্রাম্পের শয্যাসঙ্গিনী হয়ে বিন্দুমাত্র সুখ পাননি তিনি। আর কোনও দিন তার সঙ্গে যৌন সম্পর্ক করতে চান না। ওই বইতে সেদিনের ঘটনাবলির বিবরণ দিয়েছেন স্টর্মি। একটি গলফ প্রতিযোগিতায় ট্রাম্পের সঙ্গে প্রথম দেখা এবং আলাপ। সেদিন নাকি লাল রঙের টুপি পরে এসেছিলেন সাবেক প্রেসিডেন্ট। গলফ টুর্নামেন্টের পর স্টর্মিকে নিজের পেন্টহাউজে ডিনারে আমন্ত্রণ করেন তিনি। এরপরেই হয় ৯০ সেকেন্ডের অন্তরঙ্গতা, যা আজও জীবনের সবথেকে খারাপ সময় বলে মনে করেন পর্নতারকা।