গোলাপগঞ্জে চাঁদা না দেওয়ায় সাবেক ইউপি সদস্যের নামে ফেসবুকে অপপ্রচার, অভিযোগ দায়ের

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার, ০৪ ফেব্রু ২০২১ ১০:০২

গোলাপগঞ্জে চাঁদা না দেওয়ায় সাবেক ইউপি সদস্যের নামে ফেসবুকে অপপ্রচার, অভিযোগ দায়ের

গোলাপগঞ্জ প্রতিনিধি:- গোলাপগঞ্জে চাঁদা না দেওয়ায় উপজেলার ঢাকাদক্ষিণ ইউনিয়নের  সাবেক ইউপি সদস্য সালাহ উদ্দিন সিপার (৫০) এর নামে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে অপপ্রচারের অভিযোগ পাওয়া গেছে মহি উদ্দিন নামের এক যুবকের বিরুদ্ধে। অভিযুক্ত যুবক মহি উদ্দিন (৩৫) উপর বারকোট গ্রামের আব্দুস সালামের পুত্র। এ ঘটনায় ঢাকাদক্ষিণ ইউনিয়নের বারকোট খর্দ্দা পাড়া গ্রামের মৃত আজির উদ্দিনের পুত্র সাবেক ইউপি সদস্য সালাহ উদ্দিন সিপার গোলাপগঞ্জ মডেল থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন।

অভিযোগে সিপার আহমদ উল্লেখ করেন, মহি উদ্দিন বিভিন্ন অপরাধ কর্মকান্ডের সাথে জড়িত। তার বিরুদ্ধে ঢাকাদক্ষিণ ইউনিয়ন পরিষদে একটি রেজুলেশন রয়েছে। সে ও তার সন্ত্রাসী বাহিনী দিয়ে এলাকায় একের পর এক অপকর্ম করেই যাচ্ছে। বিভিন্ন সময় এর প্রতিবাদ করেন সালাহ উদ্দিন সিপার। গত ১১ জানুয়ারি আনুমানিক সকাল ১১ টার দিকে জামিটিকি বাজারে অভিযুক্তের সাথে সিপারের দেখা হলে তাকে দেখে মুহি উদ্দিন  বিভিন্ন কুরুচিপূর্ণ ভাষা ব্যবহার করতে থাকে। এ সময় তিনি প্রতিবাদ জানালে সে ২ লক্ষ টাকা চাঁদা দাবি করে। অন্যথায় ফেসবুক সে প্রচার করবে বলে হুমকি প্রদান করে। সেই সাথে সালাহ উদ্দিন আগামী ইউনিয়ন নির্বাচনে যাতে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করলে ওনার মান-সম্মান ক্ষুন্ন হয় এ জন্য সে ফেসবুকে অপপ্রচার চালাবে বলেও হুমকি দেয়। বিষয়টি সাথে সাথে তিনি আশপাশের লোকজনকে অবগত করলে সে দ্রুত পালিয়ে যায়।

অভিযোগে আরো উল্লেখ করা হয়, গত ১ ফেব্রুয়ারি জামিটিকি-পুরকায়স্হ বাজার সড়কের সংস্কার কাজে অনিয়মের অভিযোগ পেলে সেটি দেখার জন্য সেখানে যান ঐ সাবেক ইউপি সদস্য সালাহ উদ্দিন  সিপার । তিনি এ সময় রাস্তার কাজে অনিয়মের দেখতে পেয়ে কাজ করতে বাঁধা প্রদান করেন। এসময় অভিযুক্ত মহি উদ্দিন সিলেট ব্লগ নামের একটি ফেইসবুক পেইজে সালাহ উদ্দিন সিপারকে উদ্দেশ্য করে বিভিন্ন কুরুচিপূর্ণ ভাষা ব্যবহার করে পোস্ট করে।

এবিষয়ে জানতে ৩ ফেব্রুয়ারি সকাল ৯টার দিকে মহি উদ্দিনের বাড়িতে যান সালাহ উদ্দিন সিপার। ফেসবুক কুরুচিপূর্ণ ভাষা ব্যবহারের কারণ জানতে চাইলে সে বলে আমি আপনাকে আগেই বলেছি ২ লক্ষ টাকা দেওয়ার জন্য। কিন্তু আপনি সেটি দেননি। যতক্ষণ পর্যন্ত আপনি ২ লক্ষ টাকা না দিবেন ততক্ষণ পর্যন্ত বিভিন্ন ফেসবুক আইডি থেকে আপনার বিরুদ্ধে ফেসবুকে লিখা অব্যহত থাকবে।  কোন কিছু করে আমার লিখা বন্ধ করতে পারবেন না। বিষয়টি সাথে সাথেই সালাহ উদ্দিন সিপার অভিযুক্তের চাচা আব্দুল মতিন সহ এলাকার কয়েকজনকে অবহিত করেন বলেও অভিযোগে উল্লেখ করা হয়।

এ ব্যাপারে গোলাপগঞ্জ মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ হারুনুর রশীদের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, আমরা একটি অভিযোগ পেয়েছি। বিষয়টি তদন্ত সাপেক্ষ ব্যবস্থা গ্রহণে গোলাপগঞ্জ মডেল থানার এস আই আশীষ তালুকদারকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ