সুনামগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র, কাউন্সিলর প্রার্থী ও সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর প্রার্থীদের প্রতীক বরাদ্দ

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার, ৩১ ডিসে ২০২০ ০৮:১২

সুনামগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র, কাউন্সিলর প্রার্থী ও সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর প্রার্থীদের প্রতীক বরাদ্দ

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি:- সুনামগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র, সাধারণ কাউন্সিলর প্রার্থী ও সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর প্রার্থীদের প্রতীক বরাদ্দ দিয়েছে নির্বাচন কমিশন।

গত বুধবার সকালে জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে প্রার্থীদের হাতে নিজ নিজ প্রতীক তুলে দেয়া হয়। প্রতীক পেয়েই ভিন্ন আমেজে নির্বাচনী প্রচার প্রচারণায় নেমেছেন নির্বাচনে অংশ গ্রহনকারী প্রার্থীরা।। রিটার্নিং অফিসারের কার্যলয় থেকে সরবরাহ করা তথ্য অনুযায়ী, সুনামগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচনে আ.লীগ মনোনীত মেয়র প্রার্থী নাদের বখত পেয়েছেন নৌকা প্রতীক, বিএনপি মনোনীত প্রার্থী মুর্শেদ আলম ধানের শীষ প্রতীক এবং ইসলামী আন্দোলন মনোনীত প্রার্থী মোহাম্মদ রহমত উল্লাহ হাত পাখা প্রতীক পেয়েছেন।

এদিকে, পৌরসভার ৯ টি ওয়ার্ডে সংরক্ষিত আসনে এবং ভিবিন্ন ওয়ার্ডে প্রতিক পেয়েছেন তারা হলেন পৌরসভার ১নং ওয়ার্ডে কাউন্সিলর প্রার্থীদের মধ্যে আবুল হাসনাত মো. কাওছার উটপাখি প্রতীক, আব্দুস সাত্তার মো. মামুন টেবিল ল্যাম্প প্রতীক, মো. হোসেন আহমদ রাসেল পাঞ্জাবি প্রতীক এবং সুমন আহমেদ ডালিম প্রতীক পেয়েছেন।

২নং ওয়ার্ডে কাউন্সিলর প্রার্থীদের মধ্যে মঈন উদ্দিন আহমদ রিপন পানির বোতল প্রতীক, মো. আব্দুস সাত্তার উটপাখি প্রতীক, মো. মুজাহিদুল ইসলাম ব্ল্যাকবোর্ড প্রতীক, রাজকুমার বর্মণ ডালিম প্রতীক, শাহরিয়ার আহমদ রিগ্যান টেবিল ল্যাম্প প্রতীক ও সৈয়দ ইয়াছিনুর রশিদ পাঞ্জাবি প্রতীক পেয়েছেন।

৩নং ওয়ার্ডে কাউন্সিলর প্রার্থীদের মধ্যে ফজর নুর ডালিম প্রতীক, মো. জাহিদুল ইসলাম তহুর উটপাখি প্রতীক, মো. মোতাহের আলী পাঞ্জাবি প্রতীক ও মো. মোশাররফ হোসেন পানির বোতল প্রতীক পেয়েছেন।

৪নং ওয়ার্ডে কাউন্সিলর প্রার্থীদের মধ্যে চঞ্চল কুমার লোহ পাঞ্জাবি প্রতীক, বোরহান উদ্দিন পানির বোতল প্রতীক, মিন্টু চৌধুরী উটপাখি প্রতীক, সাদিকুর রহমান খান ডালিম প্রতীক পেয়েছেন।

সুনামগঞ্জ পৌরসভার ৫নং ওয়ার্ডে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ৯ জন প্রার্থী। তাদের মধ্যে আবু বক্কর সিদ্দিক ব্রিজ প্রতীক, আলী আছহাব আহমদ পাঞ্জাবি প্রতীক, এমদাদুল হক ডালিম প্রতীক, গণেশ রায় ব্ল্যাক বোর্ড প্রতীক, গোলাম সাবেরীন টেবিল ল্যাম্প প্রতীক, নীহার রঞ্জন দাস গাজর প্রতীক, বিমান কান্তি রায় পানির বোতল প্রতীক, মো. সামছুল ইসলাম পারভেজ উটপাখি প্রতীক এবং মো. সাহিন মিয়া টিউব লাইট প্রতীক পেয়েছেন।

৬নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী আবাবিল নূর ডালিম প্রতীক, মো. মনির উদ্দিন পাঞ্জাবি প্রতীক এবং রিগান আহমদ উটপাখি প্রতীক পেয়েছেন।

৭নং ওয়ার্ডে প্রতিদ্বন্দ্বী কাউন্সিলর প্রার্থীদের মধ্যে মো. সামছুজ্জামান স্বপন টেবিল ল্যাম্প প্রতীক,  আহসান জামিল আনাস ডালিম প্রতীক, জুয়েল আহমদ উট পাখি প্রতীক, মোছাদ্দেক হুসেন বাচ্চু পানির বোতল প্রতীক, মো. এনামুল হক পাঞ্জাবি প্রতীক।

৮নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী মো. নবী হোসেন পীর পাঞ্জাবি প্রতীক, এবং মো. সফিক মিয়া ডালিম প্রতীক , আহমদ নূর উটপাখি প্রতীক পেয়েছেন।

সুনামগঞ্জ পৌরসভার ৯নং ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদে সবচেয়ে বেশি প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। প্রতিদ্বন্দ্বী ১১ প্রার্থীর মধ্যে এম তাজুল ইসলাম তারেক উটপাখি প্রতীক, নজরুল ইসলাম ব্রিজ প্রতীক, মো. এনামুল হক টিউব লাইট প্রতীক, মো. কদর আলী পাঞ্জাবি প্রতীক, মো. খেলু মিয়া পানির বোতল প্রতীক, মো. গোলাম আহমদ গাজর প্রতীক, মো. মনফর আলী ফাইল কেবিনেট প্রতীক, মো. মহিন উদ্দিন স্ক্রু ড্রাইভার প্রতীক, মো. রফিকুল ইসলাম রবিন ডালিম প্রতীক, মো. রুকন উদ্দিন ব্ল্যাকবোর্ড প্রতীক এবং সাইফুর রহমান টেবিল ল্যাম্প প্রতীক পেয়েছেন।

এছাড়া ১, ২ ও ৩নং ওয়ার্ডের সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর প্রার্থীদের মধ্যে পিয়ারা বেগম আনারস প্রতীক, শিরিনা আক্তার চশমা প্রতীক এবং সুজাতা রানী রায় জবা ফুল প্রতীক পেয়েছেন।

৩, ৫ ও ৬নং ওয়ার্ডের সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর প্রার্থীদের মধ্যে অর্চনা চক্রবর্তী জবাফুল প্রতীক, চাঁদনী আক্তার অটোরিক্সা প্রতীক, মাহীন চৌধুরী টেলিফোন প্রতীক, মোছা. মনোয়ার আলম বন্যা বলপেন প্রতীক, শেলী চৌহান ময়না হারমোনিয়াম প্রতীক এবং সামিনা চৌধুরী মনি আনারস প্রতীক পেয়েছেন। এই ওয়ার্ডে ৭ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

৭, ৮ ও ৯নং ওয়ার্ডের সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর প্রার্থীদের মধ্যে নাজমা আক্তার জবাফুল প্রতীক, মোছা. ময়না বিবি চশমা প্রতীক, সৈয়দা জাহানারা বেগম আনারস প্রতীক পেয়েছেন।

আগামী ১৬ জানুয়ারি সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ