সাদা পাথরে নেই টুরিস্ট পুলিশঃ ইভটিজারদের প্রতিহত করল স্থানীয়রা

প্রকাশিত:সোমবার, ২৮ ডিসে ২০২০ ১০:১২

সাদা পাথরে নেই টুরিস্ট পুলিশঃ ইভটিজারদের প্রতিহত করল স্থানীয়রা

কোম্পানীগঞ্জ প্রতিনিধি:- সিলেটের কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার জনপ্রিয় পর্যটন স্পট ভোলাগঞ্জ সাদা পাথরে পর্যটকের সমাগম ঘটলেও তাদের নিরাপত্তা দেয়ার জন্য এখানে নেই ট্যুরিস্ট পুলিশ। যার ফলে প্রায়ই পর্যটন স্পটে মারামারিসহ অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটছে।

গত শনিবার বিকেলে নববিবাহিত এক দম্পতি সাদা পাথর পর্যটন স্পটে বেড়াতে যান। এমন সময় কয়েকজন পর্যটক তাদের ছবি তুলে এবং আপত্তিকর মন্তব্য করে। ফলে নববিবাহিত দম্পতির সাথে ইভটিজার পর্যটকদের বাকবিতন্ডার সৃষ্টি হয়। এক পর্যায়ে তাদের বাকবিতন্ডার হাতাহাতিতে রূপান্তরিত হয়। স্থানীয় এক নৌকার মাঝি বিষয়টি দেখতে পেয়ে তাদেরকে শান্ত করার চেষ্টা করেন। কিন্ত ইভটিজাররা মাঝিকেও মারধর করেন। পরবর্তীতে পর্যটন স্পটের মাঝি, দোকানীসহ অন্যান্যরা মিলে তাদেরকে প্রতিরোধ করেন। প্রায় ঘণ্টাখানেক সেখানে তাদের মধ্যে চলে এই হট্টগোল। এক পর্যায়ে স্থানীয় বিজিবি ক্যাম্পের সদস্যরা এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

এ ঘটনায় দু’পক্ষের কয়েকজন কিছুটা আহত হন। পরে তাদেরকে স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা দেওয়া হয়। পরবর্তীতে কোম্পানীগঞ্জ থানার ওসি (তদন্ত) মুজিবুর রহমান এসে স্থানীয়দের নিয়ে বিষয়টি মিমাংসা করেন।

নিরাপত্তার অভাবে প্রায়ই এখানে এ ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটছে। ইজারাদারসহ সাদা পাথর পর্যটন স্পটের সাথে জড়িত সকলে মনে করেন এই স্পটে ট্যুরিস্ট পুলিশ থাকলে এ ধরণের অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটতোনা। তাদের দাবি সাদা পাথরে পর্যটকদের নিরাপত্তার জন্য খুব দ্রুত যেন ট্যুরিস্ট পুলিশ স্থাপনের ব্যবস্থা করা হয়।

কোম্পানীগঞ্জ থানার ওসি (তদন্ত) মজিবুর রহমান বলেন, পর্যটকদের মধ্যে একটি অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেছিল সেটি স্থানীয়ভাবে মীমাংসা করা হয়েছে। তবে এ বিষয়ে থানায় কোন ডায়েরি হয়নি।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার সুমন আচার্য বলেন, আমি বিষয়টি শুনেছি, এটি একটি অনাকাঙ্খিত ঘটনা। পুলিশ প্রশাসনকে সাথে সাথে বিষয়টি দেখার জন্য নির্দেশ দেয়া হয়েছে। সাদা পাথর পর্যটন স্পটে ট্যুরিস্ট পুলিশ স্থাপনে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়া হবে বলেও জানান তিনি।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ