ফেঞ্চুগঞ্জে যাওয়ার পর মহিলা ভাইস চেয়ারম্যানের স্ট্যাটাস নিয়ে তোলপাড়

প্রকাশিত:শনিবার, ২৬ ডিসে ২০২০ ০৮:১২

ফেঞ্চুগঞ্জে যাওয়ার পর মহিলা ভাইস চেয়ারম্যানের স্ট্যাটাস নিয়ে তোলপাড়

ফেঞ্চুগঞ্জ প্রতিনিধি।।

তখনো হাসপাতালে ভর্তি হননি সিলেটের ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান সেলিনা ইয়াসমিন। সুস্থ অবস্থায় ছিলেন  ফেঞ্চুগঞ্জের নিজ বাড়িতে। তারিখ ৫ই ডিসেম্বর। ওইদিন নিজের ফেসবুক আইডিতে একটি স্ট্যাটাস দিয়েছিলেন তিনি। এরপর অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হন সেলিনা ইয়াসমিন। স্ট্রোক করার পর চিকিৎসার জন্য ভর্তি করা হয়েছিল ঢাকার একটি হাসপাতালে। সেখানেই গতকাল দুপুরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন সেলিনা ইয়াসমিন। তার মৃত্যুর পর ফেসবুকে সেই স্ট্যাটাস নিয়ে তোলপাড় চলছে।

সেলিনার স্বজনরা জানিয়েছেন- ডিসেম্বরে দ্বিতীয় দফা অসুস্থ হন সেলিনা ইয়াসমীন। এরপর থেকে তিনি চিকিৎসাধীন রয়েছেন। প্রথমে সিলেটে চিকিৎসা দেয়া হয়। এরপর নিয়ে যাওয়া হয় ঢাকায়। গতকাল দুপুরে ঢাকার একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। রাতে সেলিনার লাশ নিয়ে আসা হচ্ছে ফেঞ্চুগঞ্জে। আজ জানাজা শেষে তার মরদেহ দাফন করা হবে। এদিকে- সেলিনা ইয়াসমীন তার নিজের ক্ষতির কথা তুলে ধরে ফেসবুক আইডিতে স্ট্যাটাস দেন। সেখানে তিনি এর জন্য দায়ী তিন ব্যক্তির কথা বললেও তার নাম বলে যাননি। স্ট্যাটাসে তিনি উল্লেখ করেছিলেন-‘আমি বার বার বলছি আমি বিভিন্নভাবে মানুষের চাপের মুখে আছি। আমিও একজন মানুষ। আমার পিঠ দেয়ালে ঠেকে গেছে। যদি আমার শারীরিক, মানসিক, অর্থনৈতিক অবস্থার কেন ক্ষতি হয় তার জন্য মাত্র ৩ জন মানুষ দায়ী থাকবে। সমস্ত প্রমাণ আমার মেয়ের কাছে আছে, যথোপযুক্ত সময়ে আমার মেয়ে আপনাদের সামনে উপস্থাপন করবে। মনে রাখবেন ৩ জন মানুষই এই পরিস্থিতি সৃষ্টি করেছে। আমার ও আমার মেয়ের জন্য সবাই দোয়া করবেন।’ এদিকে- মৃত্যুর পর তার স্ট্যাটাস নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তোলপাড় চলছে। স্বজনরা জানিয়েছেন- পোস্ট দেয়ার পরে তিনি অসুস্থ হয়ে পড়েন। তার স্ট্রোক হয়। এ কারণে তাকে ঢাকায় নিয়ে যাওয়া হয়েছিল।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ