সুনামগঞ্জে শত্রুতার জেরে পুকুরে বিষ প্রয়োগ পানিতে ভেসে উঠল দেড় টন মাছ

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার, ২৪ ডিসে ২০২০ ০৭:১২

সুনামগঞ্জে শত্রুতার জেরে পুকুরে বিষ প্রয়োগ পানিতে ভেসে উঠল দেড় টন মাছ

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধিঃ পূর্ব শত্রুতার জের ধরে সদর উপজেলার কুরবাননগর ইউনিয়নের পশ্চিম লালারচর গ্রামে অঞ্জলী এগ্রো ফার্মের পুকুরে বিষ প্রয়োগ করেছে দুষ্কৃতিকারীরা।

এতে ফার্মের ক্ষতি হয়েছে প্রায় দেড় লাখ টাকার। সোমবার দিবাগত রাত অনুমান ১১টার পর এই বিষ প্রয়োগের ঘটনা ঘটেছে। এই ঘটনায় বুধবার সকালে সদর মডেল থানায় লিখিত অভিযোগ দাখিল করেন ফার্মের মালিক পার্থ সারথী পুরকায়স্থ।

পুকুরের পাহাদার মহারাজ দাস জানান, প্রতিদিনের মতো তিনি রাত অনুমান সাড়ে ১১টায় পুকুরপাড়ের অস্থায়ী ঘরে ঘুমিয়ে পড়েন। ভোরবেলায় উঠে দেখেন পুকুরের অনেক মাছ মরে ভেসে উঠেছে। পুকুর ভর্তি মরা মাছের মধ্যে অনেকগুলো মাছ আবার আধা মরা হয়ে ভেসে কাতরাচ্ছে।

তখন তিনি দ্রুত পুকুরে নেমে নৌকা নিয়ে মরে যাওয়া মাছ উঠাতে শুরু করেন। অল্প সময়ে নৌকা বুঝাই হয়ে যায় মাছে। নৌকার মাছ দ্রুত শুকনায় ফেলে আবারও মাছ তোলতে থাকেন তিনি।

এই সময় ফার্মের মালিক পার্থ সারথী পুরকায়স্থকে মোবাইল ফোনে এই ঘটনার বিষয়ে জানান। তিনিও চলে এসে লালারচর গ্রামের মানুষ ডেকে এই ঘটনার বিষয়ে অবগত করেন।

এ ব্যাপারে ফার্মের মালিক পার্থ সারথী পুরকায়স্থ জানান, আমি ১০ কেয়ার জমিতে তিনটি পুকুর খনন করে দীর্ঘদিন ধরে মাছের চাষ করে আসছি। কিন্তু আগে কখনও আমার পুকুরে বিষ প্রয়োগের ঘটনা ঘটেনি। এবারও প্রায় ৩ টন পাঙাস মাছের পোনা ছেড়েছি পুকুরে। মাছের বয়স হয়েছিল ৪ মাস। এ বছর লালারচর গ্রামের কিছু মানুষ আমার সাথে নানা বিষয়ে ঝগড়া বিবাদ করে আসছে। এই শত্রুতার জের ধরে হয়তো কে বা কারা বিষ প্রয়োগ করেছে।

আজ তিনদিন যাবত আমার পুকুরের প্রায় দেড় হাজার কেজি পাঙাস মাছ মরে ভেসে উঠেছে। আমি এই দুষ্কৃতিকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি জানাই।সদর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মো. সহিদুর রহমান বলেন, অভিযোগ হলে ঘটনা তদন্ত করে আইনী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ