নোটিশঃ রিজভীকে তোপ হাফিজের

প্রকাশিত:রবিবার, ২০ ডিসে ২০২০ ০৯:১২

নোটিশঃ রিজভীকে তোপ হাফিজের

আদিষ্ট না হয়েও’ কারণ দর্শানো নোটিশ পাঠানোয় বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবির রিজভীর ওপর বেজায় চটেছেন দলের ভাইস চেয়ারম্যান মেজর (অব.) হাফিজ উদ্দিন আহমেদ বীর বিক্রম।

তিনি বলেন, ‘আমার বক্তব্য (নোটিশের জবাব) স্থায়ী কমিটির সদস্যদের সামনে উপস্থাপন করা হোক। বক্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে আমাকে যদি দোষী সাব্যস্ত করা হয়, যেকোনো শাস্তি মাথা পেতে নিতে প্রস্তুত আছি। আমি দলীয় নেতৃত্বের প্রতি সর্বদাই শ্রদ্ধা পোষণ করি।’

শনিবার (১৯ ডিসেম্বর) রাজধানীর বনানীতে নিজের বাসভবনে এক সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের তিনি এসব কথা বলেন।

হাফিজ বলেন, ‘আমি একজন যুদ্ধাহত, খেতাবপ্রাপ্ত মুক্তিযোদ্ধা। বিজয়ের মাসে শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবসে অসৌজন্যমূলক ভাষায় অসত্য অভিযোগ ও কারণ দর্শানোর নোটিশ পেয়ে হতবাক হয়েছি।’

হাফিজের নামের বানানসহ অনেক ভুলই রুহুল কবির রিজভী স্বাক্ষরিত চিঠিতে দৃশ্যমান বলে অভিযোগ করেন তিনি।

এই বিএনপি নেতা বলেন, ‘১৯৯১ সালে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে সংসদ নির্বাচনে বিজয়ী হয়ে আমি বিএনপিতে যোগদান করেছিলাম। বিগত ২২ বছর ধরে দলের অন্যতম ভাইস চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করে আসছি।’

তিনি বলেন, ‘দলের ভাইস চেয়ারম্যানকে একজন যুগ্ম-মহাসচিব (আদিষ্ট না হয়েও) এমন কঠিন, আক্রমণাত্মক ভাষায় কৈফিয়ত তলব করায় অত্যন্ত অপমান বোধ করছি। এখানে প্রটোকল ও সৌজন্যের ব্যত্যয় ঘটেছে।’

‘ব্যক্তি রুহুল কবির রিজভী একজন ভদ্র, নিষ্ঠাবান, ত্যাগী নেতা। তার সঙ্গে আমার সুসম্পর্ক রয়েছে। তার কাছ থেকে এ ধরনের চিঠি আশা করিনি’ বলেন বিএনপির এই ভাইস চেয়ারম্যান।

প্রসঙ্গত, দলীয় সিদ্ধান্তের বাইরে গিয়ে ১৪ ডিসেম্বর হঠাৎ রাজধানীতে বিএনপির কিছু নেতাকর্মী সড়কে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ করে। এরপর দলের দুই ভাইস চেয়ারম্যান মেজর (অব.) হাফিজ উদ্দিন আহমেদ বীর বিক্রম ও শওকত মাহমুদকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেওয়া হয়।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ