১৪৪ ধারা ভঙ্গ করে জৈন্তাপুরে জোর পুর্বক জায়গা দখল করে বাড়ী ঘর নির্মাণ

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার, ১০ ডিসে ২০২০ ০৭:১২

১৪৪ ধারা ভঙ্গ করে জৈন্তাপুরে জোর পুর্বক জায়গা দখল করে বাড়ী ঘর নির্মাণ

মোঃ রেজওয়ান করিম সাব্বির, জৈন্তাপুর সিলেট প্রতিনিধি:-  সিলেটের জৈন্তাপুরে উপজেলা জৈন্তাপুর ইউনিয়নের আসামপাড়া নয়াবস্তি গ্রামের আসামপাড়া মৌজার ৪নং জেএল স্থিত ৫৭নং দাগের ১৫১ নং হাল দাগের ২৬৯ নং খতিয়ানের ১একর ৩৩ শতাংশ ভূমিতে খরিদ সূত্রে মালিক হয়ে বসবাস করিয়া আসিতেছি কেন্দ্রী গ্রামের তেরা মিয়ার ছেলে আজাদ মিয়া।

সম্প্রতি নিজেদের জায়গা দাবী করে অবৈধ ভাবে পেশি শক্তির বলে আসামপাড়া গ্রামের জলাল মিয়ার ছেলে মানিক মিয়ার নেতৃত্বে আদালতের আদেশ অমান্য করে জোর পূর্বক জায়গা দখল করে বাড়ীঘর নির্মাণ করছে মৃত আব্দুল কমিমের ছেলে বাবুল মিয়া, রহমান মেইকারের ছেলে দুলাল মিয়া, মুতলিব মিয়ার ছেলে আলী আহমদ, মৃত ছাইদ মিয়ার ছেলে সুলেমান আহমদ, মৃত জলিল মিয়ার ছেলে দুলাল আহমদ, মৃত চান মিয়ার ছেলে আব্দুস শুকুর, মৃত কুটি মিয়ার ছেলে বাবুল মিয়া।

 

অপরদিকে জায়গার মালিক মাননীয় অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট আদালত সিলেট ১৪/২০১৮ নং বিবিধ মামলা দায়ের করে। মামলার পরিপ্রেক্ষিতে আদালত সহকারী কমিশনার ভূমি জৈন্তাপুরকে তদন্তের নির্দেশ প্রদান করে। আদালতের নির্দেশ পেয়ে সহকারী কমিশনার ভূমি ৪নং জেএলস্থিত আসামপাড়া মৌজার ১০/১ নং খতিয়ানের ৫৭ নং দাগের ১৫১ নং হাল দাগের ২.৭০৯৫ একর ভূমি অত্র অভিযোগের বিবাধীগন রেকর্ডীয় মালিক মোঃ আছাদুল হোসেন চৌধুরী, শাহীন আহমদ খাঁন, মোঃ আসাদ উদ্দিন খাঁন, আব্দুল কাদির চৌধুরী, হোসেন আহমদ চৌধুরীর নিকট হইতে ২৭-০১-২০১৬ ইংরেজী তারিখে ২৪৯/২০১৬ দলিল মূলে খরিদ সূত্রে মোঃ আবুল কালাম আজাদ ও মাসুক আহমদ মালিক বলিয়া বিজ্ঞ আদালতে প্রতিবেদন প্রেরণ করা হয়। তারই প্রেক্ষিতে বিজ্ঞ আদালতের নির্দেশে জৈন্তাপুর থানার বিবিধ মামলা নং-১৪/২০১৮ স্মারক নং-৮৯২ প্রেক্ষিতে উক্ত ভূমিতে কোন ধরনের বাড়ী ঘর নির্মাণ না করার জন্য ফৌজদারী কার্যবিধির ১৪৪ ধারা জারি করেন।

এদিকে পেশি শক্তির বলে বিবাদীগন ঐক্যবদ্ধ হয়ে উল্লেখিত ভূমিতে ১৪৪ ধারা অমান্য করে বাড়ী ঘর নির্মাণ করিতেছে। খরিদা সূত্রে মালিক মৌখিক ভাবে বাধাঁ প্রদান করিলে বিবাদীগন প্রাণনাশের হুমকী ধমকী দিয়ে তাড়িয়ে দেয়। এদিকে বাদী আইনের দারস্থ হয়ে কোন প্রতিকার পাচ্ছেন না বালে দাবী করেন।

এবিষয়ে জানতে জৈন্তাপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মহসিন আলী জানান সম্প্রতি ভূমি দখল ঘরবাড়ী নির্মাণ বিষয়ে আমার নিকট কোন ধরনের অভিযোগ আসেনি। অভিযোগ পেলে তদন্ত পূর্বক আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ