কাজীটুলায় নববধূ তামান্না হত্যা: স্বামীসহ ৬ জনের বিরুদ্ধে মামলা, গ্রেফতার ১

প্রকাশিত:মঙ্গলবার, ২৪ নভে ২০২০ ০৪:১১

কাজীটুলায় নববধূ তামান্না হত্যা: স্বামীসহ ৬ জনের বিরুদ্ধে মামলা, গ্রেফতার ১

সিলেট অফিস : সিলেট নগরীর কাজীটুলা এলাকায় নববধূ সৈয়দা তামান্না বেগমকে হত্যার অভিযোগে থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। সোমবার রাতে নিহতের ভাই সৈয়দ আনোয়ার হোসেন রাজা বাদী হয়ে কতোয়ালি থানায় এই মামলা দায়ের করেন (মামলা নং ৫৮)। মামলায় নিহতের স্বামী মো. আল মামুনসহ ৬ জনকে আসামি করে মামলা করা হয়েছে।

মামলায় মামুন ছাড়াও অন্য আসামিরা হলেন- এমরান, পারভীন, মা্হবুব সরকার, বিলকিস ও শাহনাজ। এছাড়া অজ্ঞাতনামা আরও কয়েকজনকে আসামি করা হয়েছে।

এদিকে সোমবার (২৩ নভেম্বর) রাতে গোপন তথ্যের ভিত্তিতে এজহার নামীয় ২নং আসামী এমরানকে (৩০) কোতোয়ালি থানাধীন সোবহানীঘাট এলাকা থেকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

গ্রেফতারকৃত এমরান বরিশাল জেলার বাবুগঞ্জ থানার চরহোগলা (পাতিয়া চর উত্তর) গ্রামের আব্দুল মজিদের ছেলে। গ্রেফতারকৃত এমরানকে আজ মঙ্গলবার (২৪ নভেম্বর) দুপুরে আদালতে হাজির করবে পুলিশ। এসময় অন্যান্য আসামীদের ব্যাপারে তথ্যের জন্য আদালতে রিমান্ডের আবেদন করতে পারেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা।

গ্রেফতারের বিষয়টি নিশ্চিত করেন কোতোয়ালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ সেলিম মিঞা। তিনি জানান, পুলিশ মামলার প্রধান আসামীসহ অন্যদের গ্রেফতার করার জন্য অভিযান অব্যাহত রেখেছে। ইতোমধ্যে পুলিশ এজহার নামীয় আসামী এমরান নামের এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে।

তবে এখনও পলাতক রয়েছেন আল মামুনসহ অন্য আসামীরা।

এদিকে মামুনের বিরুদ্ধে প্রতারণা করে তামান্নাকে বিয়ে করার অভিযোগ উঠেছে। এর আগে আরেকটি বিয়ে করেছিলেন মামুন। আগের স্ত্রীর দায়ের করা একটি মামলা রয়েছে। সেই স্ত্রীর ঘরে একটি সন্তানও রয়েছে মামুনের।

তামান্নার খালাতো ভাই মো. ইকবাল জানান, মামুন আগেও একটি বিয়ে করেছে। সেই বিয়ের বিষয়টি গোপন করে সে তামান্নাকে বিয়ে করে। এ ক্ষেত্রে মামুনকে সহায়তা করেন মেঘনা লাইফ ইন্সুরেন্সের শাহনাজ পারভিন নামের এক মহিলা কর্মকর্তা।

ইকবাল আরও বলেন, ওই মহিলা মামুনকে তার চাচাতো ভাই বলে পরিচয় দেন এবং তামান্নার পরিবারে বিয়ের জন্য পীড়াপিড়ি করতে থাকেন। বিয়ের সময় টাকা দিয়েও শাহনাজ পারভিন সাহায্য করেন তামান্নার পরিবারকে। এসময়ের শাহনাজ পারভিনের আচরণই আমাদের কাছে সন্দেহজনক ছিলো। এ বিয়েতে তামান্নার পরিবারের বেশিরভাগ সদস্যদের অসম্মতি ছিলো। কিন্তু শাহনাজ পারভিনের পীড়াপিড়িতেই এ বিয়েটি হয়।

উল্লেখ্য, সিলেট নগরীর উত্তর কাজীটুলার এলাকার অন্তরঙ্গ ৪/এ বাসার দুতলার একটি কক্ষ থেকে সোমবার (২৩ নভ্ম্বের) দুপুর দেড়টায় দক্ষিণ সুরমা থানার ফুলদি এলাকার মেয়ে নববধূ সৈয়দা তামান্না বেগমের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।