উন্নয়নের ছোঁয়া থেকে বঞ্চিত শেওলাপাড়া রাস্তা-দেখার কেউ নেই

প্রকাশিত:শনিবার, ২১ নভে ২০২০ ০৬:১১

উন্নয়নের ছোঁয়া থেকে বঞ্চিত শেওলাপাড়া রাস্তা-দেখার কেউ নেই

ছাতক প্রতিনিধি:-  উন্নয়নের ছোঁয়া থেকে বঞ্চিত সুনামগঞ্জের ছাতক উপজেলার ৮নং দক্ষিণ খুরমা ইউনিয়নে হাওর-বিল সমৃদ্ধ অবহেলিত গ্রামটি ৫নং ওয়ার্ডের শেওলাপাড়া। অতিত থেকে বর্তমান সরকারের আমলে চারদিক উন্নয়নের জোয়ারে ভাসলেও এখনে উন্নয়নের ছোয়া পায়নি এই অবহেলিত গ্রামটি।

দক্ষিণ খুরমা ইউনিয়নের ৯টি ওয়ার্ড। এর মধ্যে ৮টি ওয়ার্ডে সরকারের উন্নয়ন কর্মকান্ড ব্যাপকভাবে চলমান রয়েছে। গ্রামীণ জনপদের এ অবহেলিত গ্রামটি দৃশ্যমান কোন উন্নয়ন চোখে পড়েনি। সামান্য বৃষ্টিতে গ্রামীণ সড়কটি পানিতে তলিয়ে যায়। এ ওয়ার্ডে একটি ইবতেদায়ী মাদ্রাসা ও সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় রয়েছে।
এ প্রাথমিক বিদ্যালয়টি সংসদ নির্বাচন ও ইউপি নির্বাচনে ভোট কেন্দ্র হিসেবে ব্যবহার করা হয়।

স্থানিয়রা জানান, গ্রামের সকল মানুষই কৃষিকাজ করে জীবিকা নির্বাহ করেন। এই গ্রামের যোগাযোগ ব্যবস্থার জন্য যে রাস্তাটি রয়েছে সেটি মাটির তৈরী কাঁচা রাস্তা। সামান্য বৃষ্টিতে প্যাক-কাঁদায় চলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়ে। বর্ষা মৌসুমে মাদ্রাসা, বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা প্রতিনিয়তই কষ্ট করে এ সড়ক দিয়ে পায়ে হেটে চলাচল করে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ইতোমধ্যে প্রত্যেকটি গ্রামকে শহর করার ঘোষণা দিয়েছেন, যেন শহর এবং গ্রামের মধ্যে কোন বিভেদ না থাকে। অথচ গ্রামীণ জনপদের এ হাড়াইর পাড়া গ্রামটি উন্নয়ন থেকে দূরে অবহেলিত হয়ে পড়ে আছে।

গ্রামের বাসিন্দা সাংবাদ কর্মী হাসান আহমদ জানান, গ্রামবাসীর দুঃখ যে কবে শেষ হবে ? কি বা বর্ষা কি বা শীতকাল সবসময় প্রায় হাটু সমান পানি কাদা জমে থাকে। আমরা শেওলাপাড়া সব চেয়ে অবহেলিত গ্রামের মানুষ। আমাদের রাস্তাঘাট মনে হয় কোন দিন পাকা তো হওয়া দুরের কথা মাঠি ভরাটও হবে না। আর হলেও মনে হয় আমরা দেখে যেতে পারবো না। ভোটের সময় আসলে প্রতিশ্রতি দিয়ে ভোট নেয়। ভোট দেওয়া হয়ে গেলে নেতারা আর আসে না।

এ বিষয়ে শেওলাপাড়া গ্রামের আমির উদ্দীন ও
হুসাইন আমহদ জানান, এ ইউনিয়নের বিভিন্ন ওয়ার্ডে সরকারের উন্নয়ন কাজ চলমান থাকলেও এ ওয়ার্ডের শেওলাপাড়া গ্রামে কোন কাজ হচ্ছে না। রাজনৈতিক প্রতিহিংসার কারণে এ গ্রামে কোন কাজ হয় না। স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান এ ওয়ার্ডে কাজ হবে হচ্ছে বলেন সব সময় কিন্তুু কাজ করেন অন্য ওয়ার্ডে। এ গ্রামের সড়কে গাড়ি-সিএনজি চলাচল তো দূরে থাক, পাঁয়ে হেটে চলাও দুস্কর। স্থানীয় গ্রামবাসী এ গ্রামের উন্নয়ন ও অগ্রযাত্রার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ ও প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ